From Phoenix to Google Chrome

গুগলের নতুন ক্রোম ব্রাউজার নিয়ে এর মধ্যে অনেক চর্চা হয়ে গেছে। নতুন ব্রাউজার। আমার ফায়ারফক্সের প্রথম ভার্সানের কথা মনে পড়ে গেল। প্রায় ৬ বছর আগের কথা। তখন ফিনিক্স নাম ছিল। আমার বাড়িতে তখন উইন্ডোজ ৯৮। প্রচুর উৎসাহ নিয়ে বাড়িতে ফিনিক্স ব্যবহার করতাম। সে এক ধরণের মুক্তি, ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের হাত থেকে। তারও আগে মোজিলা ১.০ ডাউনলোড করেছিলাম। কিন্তু কোন কারণে খুব বেশী ব্যবহার করতাম না। কিন্তু ২০০২ সালের শেষের দিকে ফিনিক্স আসার পর থেকে আর ফিরে তাকাই নি। তারপর থেকে দায় না পড়লে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার চালাতাম না। তখন মোজিলা ব্রাউজারও আপডেট করে রাখতাম, মাঝে মাঝে ফিনিক্স টেষ্ট করবার জন্য। এই সব কিছু হয়েছে, ডায়াল-আপ কানেকশান দিয়ে। মাঝে মাঝে ভাবি, কি অসীম ধৈর্য্য ছিল! মোজিলা ব্রাউজার কিন্তু হারিয়ে যায় নি। আজকাল মেজিলা ব্রাউজারকে সি-মাংকি বলে। যাইহোক, তারপর কাবেরী দিয়ে অনেক জল গড়ালো। ফিনিক্স থেকে ফায়ারফক্সে হলো। বাকিটা ইতিহাস। আমার মতে গুগলের নতুন ক্রোম ব্রাউজার ফায়ারফক্সের উত্তরসূরী। কারণ ক্রোম ব্রাউজারও ওপেনসোর্স। যদিও ক্রোম ব্রাউজারের কিছু উপাদান অ্যাপেলে সাফারিতে ব্যবহার হয়।

এখন প্রশ্ন হলো, ফায়ারফক্স না ক্রোম ব্রাউজার? দুটোই থাকুক না। একটা বাগানে শুধু এক রকম ফুল কি ভাল লাগে? এই লেখাটা ক্রোম ব্রাউজারে শুরু করেছিলাম। শেষ করলাম ফায়ারফক্সে।

Should We Pay and Use Software?

পয়সা খরচা করে সফটওয়্যার কিনতে চান? আমি বলব একবার ভেবে দেখুন। যদি লিনাক্স অথবা ফ্রিবিএসডির ভক্ত হন, তাহলে এই ব্লগ পড়বার দরকার নেই। যাঁদের লিনাক্স/ফ্রিবিএসডি পছন্দ নয় তাঁরা উইন্ডোজ কিনবেন।

আগে ছাত্রদের উইন্ডোজ কিনতে অনেক ডলার/টাকা লাগতো। আজকাল লাগবে না। আমাদের মতো উন্নয়নশীল দেশের জন্য মাইক্রোসফট দয়া করে তিন ডলারের বিনিময় ছাত্রদের অনেক সফটওয়্যার দিচ্ছে। তবে মাইক্রোসফটের এই দয়া নিঃশর্ত নয়।

উইন্ডোজ না হয় কিনলেন। তারপর কি করবেন? ফ্রীওয়্যার ব্যবহার করবেন? করতেই পারেন। তবে সবসময় নয়। অনেক ফ্রীওয়্যারে স্পাইওয়্যার থাকে। সুতরাং খুব নিশ্চিন্ত না হয়ে ফ্রীওয়্যার ব্যবহার করা উচিৎ নয়। কিন্তু সব কি ফ্রীওয়্যার হয়? যেমন মাইক্রোসফট ওয়ার্ড। তাহলে উপায় কি? ভাল উপায় আছে। ওপেনসোর্স সফটওয়্যার। ওপেনসোর্স সফটওয়্যার ব্যবহারকারীকে কতখানি দেয় বোঝার জন্য একবার ধৈর্য ধরে মাইক্রোসফটের EULA পড়তে হবে।

কিন্তু কোন ওপেনসোর্স? গুগলে খোঁজার কোন মানে হয় না। Open Source as Alternative নামে একটা খুব সুন্দর ওয়েবসাইট আছে। যাবতীয় ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের সন্ধান সেখানে পেয়ে যাবেন।

ওপেনসোর্স সফটওয়্যারের জন্য কোন পয়সা লাগে না। তাহলে কি সফটওয়্যারকে পণ্য হিসাবে ভাবা যাবে? প্রফেসোর মাইকেল এ কুসুমানো তাই মনে করেন। এরিক এস রেমণ্ড ঠিক এর উল্টো ভাবেন।