Will Firefox 3 be a problem for Microsoft Office?

আমার ব্লগের টাইটেলের প্রশ্নের উত্তর আমার নিজেরই জানা নেই। সফটওয়্যারের মধ্যে মাইক্রোসফট অফিস হল হাতির মত। বিশাল সফটওয়্যার। নিজের বাণিজ্যিক নিয়মে চলে। কাউকে তোয়াক্কা করতে চায় না। এই হাতির প্রয়োজন আছে। সকলের কাজে লাগে। বিনা পয়সায় পেলে আরো ভাল লাগে।

গুগলের একটা চমৎকার অনলাইন সার্ভিস হল গুগল ডক্‌স – স্প্রেডশীট এবং ডকুমেন্ট লেখার জন্য।খুবই ভাল যদি সবসময় ইন্টারনেট থাকে। আর না থাকলে গুগল ডক্‌স মোটেই ব্যবহারযোগ্য নয়। ফায়ারফক্স ৩ এই পরিস্থিতির একটা পরিবর্তন ঘটাবে। শুধু গুগল ডক্‌স নয় চাইলে ফায়ারফক্স ৩-এ যে কোন ওয়েব ভিত্তিক অ্যাপলিকেশন অফলাইনে চলবে। অ্যাডোবের অ্যাপোলোতেও চাইলে এই সুবিধা থাকবে। চাইলে বলছি কেন? কারণ এই সুবিধে পেতে গেলে বর্তমান ওয়েব অ্যাপলিকেশনগুলোর মধ্যে কাঠামোগত পরিবর্তন আনতে হবে। বর্তমানে যে অবস্থায় আছে, সেই অবস্থায় চলবে না।

এদিকে মাইক্রোসফট অনলাইন জগতে ঠিক কি করবে ভাবতে ভাবতে, গুগলের গেপ বাজারে এসে গেল। ভবিষ্যতে যদি গেপ ইন্টারনেটের সঙ্গে যোগাযোগ ছাড়াই চলতে পারে, তাহলে মাইক্রোসফট অফিসের কি হবে?

লেখা শুরু করেছিলাম মাইক্রোসফট অফিসকে হাতির সঙ্গে তুলনা করে। মনে রাখতে হবে হাতি বসলেও ঘোড়ার চেয়ে লম্বা থাকে। হাতি থাকবে। হয়তো খুব একটা আনন্দে থাকবে না।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s